ঢাকায় এসে করোনায় আক্রান্ত হলেন নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার ফিন অ্যালেন।

ঢাকায় এসে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার ফিন অ্যালেন। বাংলাদেশের সাথে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য নিউজিল্যান্ড দল আজই বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে। তবে ফিন অ্যালেন ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম এসেছিলেন ২০ আগস্ট।

ইংল্যান্ড থেকে `দ্য হানড্রেড’ খেলে বাংলাদেশে এসেছেন দু’জন। ঢাকায় হোটেলকক্ষে আইসোলেশনে ছিলেন এই দুই ক্রিকেটার। আজ তার কোভিড পজিটিভ হওয়ার খবর দিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট। অ্যালেনের মৃদু উপসর্গ আছে।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বলছে, বাংলাদেশে আসার পরই পজিটিভ এসেছে তার। ইংল্যান্ডের বিমানে ওঠার ৪৮ ঘণ্টা আগে প্রয়োজনীয় সব রকম টেস্টে নেগেটিভ হয়েছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটা বিমানে ঢাকা এসেছেন এ ব্যাটসম্যান। টিকা নেয়াই ছিল অ্যালেনের।

আপাতত বিসিবির অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছেন অ্যালেন। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীস চৌধুরীর সাথে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান চিকিৎসক প্যাট ম্যাকহিউয়ের যোগাযোগ হচ্ছে বলেও জানানো হয়েছে।

নিউজিল্যান্ড দলের ম্যানেজার মাইক স্যান্ডল বলেছেন, বিসিবির পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ মানের চিকিৎসাই দেয়া হচ্ছে অ্যালেনকে, ‘ফিনের জন্য সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক এটা। আপাতত সে ঠিকঠাক আছে। আশা করি, দ্রুত সেরে উঠবে, তার টেস্টে নেগেটিভ আসবে এবং শিগগিরই ছাড়া পাবে।’

বিসিবি ব্যাপারটাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে বলেও জানিয়েছেন স্যান্ডল, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেটের কর্তৃপক্ষ খুবই পেশাদারী দেখাচ্ছে এ ব্যাপারে। আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।’

আপাতত একটা নির্দিষ্ট সময় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিতে হবে অ্যালেনকে। এরপর টানা দুই দিন যদি কোভিড-১৯ টেস্টে নেগেটিভ আসে, তবেই সতীর্থদের সাথে অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন তিনি। এখন পর্যন্ত তার বদলি হিসেবে কাউকে নেয়ার ঘোষণাও দেয়নি নিউজিল্যান্ড।

মঙ্গলবার ঢাকা পৌঁছার পর তিন দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা নিউজিল্যান্ড দলের সদস্যরা। এ সময়ের মধ্যে দুই দফা কোভিড-১৯ টেস্টের ভেতর দিয়ে যেতে হবে তাদের। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এরপরই অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন তারা।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ