প্রধানমন্ত্রীর উপহার দেওয়া ঘরে থাকছেন না,৪০ ভাগ পরিবার

পল্লী টিভি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মুজিববর্ষ উপলক্ষে মুন্সীগঞ্জের টংগীবাড়ি উপজেলায় ২০টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দিয়েছে সরকার। কিন্তু এতে থাকছে না ৪০ ভাগ পরিবারও। কারণ গৃহহীন পরিবারকে ঘর দিলেও ঘরে এখনও পর্যাপ্ত নেই বিদ্যুৎ, পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা। এতে ভেস্তে যেতে বসেছে এই পুনর্বাসন কার্যক্রম। অভিযোগ আছে তালিকায় প্রকৃত অসহায়দের সংখ্যা নিয়েও।

মুন্সীগঞ্জ জেলার টংগীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুরের সলিমাবাদ গ্রামের দম্পতি আব্দুল বাতেন ও জুলেখা বেগম। মুজিবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য সরকারের বরাদ্দকৃত ঘর পেয়েছেন তারাও। তবে বিদ্যুৎ, পানি আর স্যানিটেশন ব্যবস্থা ছাড়াই কেটে গেছে ২ মাস। ২০টি পরিবারের মধ্যে ৬টি পরিবার রয়েছে যারা গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করে সংসার চালান।

এমন অবস্থায় অল্প কয়েকটি পরিবার বসবাস শুরু করলেও টংগীবাড়ির কামারখাড়ার নরশংকরের অধিকাংশ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার সেই ঘরে থাকছেন না। ফলে ভেস্তে যেতে বসেছে সরকারের এই পুনর্বাসন কার্যক্রম।

অভিযোগ উঠেছে, তালিকায় প্রকৃত অসহায়দের সংখ্যা নিয়েও। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, বিধবা আর প্রবীণদের থাকার কথা থাকলেও সে সংখ্যা তুলনামূলক কম।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা পারভীন জানান, অল্প সময়ের মধ্যে সমস্যার সমাধান করে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘরে ওঠা নিশ্চিত করা হবে। টংগীবাড়ি উপজেলায় প্রাথমিক পর্যায়ে ২০ টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দেয়া হয়েছে। তবে পুরোপুরি উপযোগী করে দেওয়ার দায়িত্ব চেয়ারম্যানের। বাকী কাজগুলো চেয়ারম্যান করে দিলেই ঘরগুলো বসবাসের উপযোগী হবে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ