নোয়াখালী সেনাবাগে নানার বাড়ীতে বেড়াতে এসে নিখোঁজ স্কুল ছাত্রের গলিত লাশ উদ্ধার।

মোঃইব্রাহিম নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নানার বাড়ীতে বেড়াতে এসে নিখোঁজের ৪দিন পর নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কাদরা ইউনিয়ন থেকে মো. মিজানুর রহমান আশ্রাফুল (৬) নামের এক শিশুর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।পুলিশের ধারণা হত্যার পর দূর্বৃত্তরা আশ্রাফুলের লাশ মাটির নিচে ফুঁতে রেখে গিয়েছিল।
সোমবার রাত ৮টার দিকে নজরপুর গ্রামের তেলি পুকুর এলাকার খাল পাড়ের বাঁশ পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।নিহত মো. মিজানুর রহমান আশ্রাফুল উপজেলার ডমুরুয়া ইউনিয়নের বাবুপুর শ্রীপুর গ্রামের মীর বাড়ীর হোটেল শ্রমিক আবুল কাশেম মীরের ছেলে। সে স্থানীয় গাজীরহাট বাজারের সানরাইজ একাডেমির প্রথম শ্রেণির ছাত্র ছিল।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২এপ্রিল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তার নানার বাড়ী নজরপুর এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় আশ্রাফুল। এরপর থেকে পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোজাখুঁজি করে কোন সন্ধান পায়নি। সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় এক ব্যক্তি তেলি পুকুর এলাকার বাঁশ বাগান থেকে পঁচা গন্ধ ও মাছি উড়তে দেখে মাটির নিচে পঁচা কিছু আছে বলে সন্দেহ করে। পরে বিষয়টি থানায় অবগত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটির খুঁড়ে আশ্রাফুলের লাশ উদ্ধার করে।ঘটনার সত্যতা স্বীকার সেনবাগ থানার ওসি আবদুল বাতেন মৃধা করে বলেন, ঘটনায় নিহতের বাবা গত শুক্রবার রাতে থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেছিলেন। ঘটনাটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলে ধারণা করা হচ্ছে।বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ